বিশ্ব সভ্যতা বিকাশে গ্রিক ও রোমান সভ্যতার ভূমিকা শীর্ষক একটি প্রতিবেদন রচনা কর (২৫০-৩০০ শব্দ) – নবম শ্রেণীর বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

নবম সপ্তাহের নবম শ্রেণির মানবিক বিভাগের বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান সম্পন্ন হয়েছে।

প্রিয় শিক্ষার্থীরা আপনারা যদি নবম শ্রেণির বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা বিষয়ের নবম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট খুঁজে থাকেন তাহলে আমরা বলবো আপনি ভাগ্যবান কারণ এই পোস্টে পোস্ট।

সম্পূর্ণ এই বিষয়টি নিয়েই আলোচনা করা হয়েছে।

তাহলে চলুন দেখা যাক আজকের আলোচনার বিষয় ও মূল বিষয়টি কি দেওয়া হয়েছে:

প্রিয় শিক্ষার্থীরা নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা বিষয়ের নবম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট বিষয় হল বিশ্ব সভ্যতার বিকাশে গ্রিক ও রোমান সভ্যতার ভূমিকা শীর্ষক একটি প্রতিবেদন রচনা তৈরি করো 250 থেকে 300 শব্দের মধ্যে।

নবম শ্রেণীর অন্যান্য বিষয়গুলো হলো পদার্থবিজ্ঞান, হিসাববিজ্ঞান, বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা, জীববিজ্ঞান, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ও সর্বশেষে পৌরনীতি ও নাগরিকতা বিষয়।

এই সপ্তাহের সকল শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট এর কাজগুলো ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে এর মধ্যে নবম শ্রেণীর এই এসাইনমেন্টে আমরা এখন সমাধান করব।

বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা কথা বলতে গেলে গ্রিক ও রোমান সভ্যতার ভূমিকা অপরিসীম।

একটি সভ্যতা হলেও কোনো জটিল সমাজব্যবস্থা যা নগরায়ন সামাজিক স্তরবিন্যাস প্রতীকী যোগাযোগে প্রণালী উপলব্ধ স্বতন্ত্র পরিচয় এবং প্রাকৃতিক পরিবেশের ওপর নিয়ন্ত্রণ এর মত গুণাবলী দ্বারা বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত থাকে সভ্যতাকে প্রায়ই আমরা আরো কিছু সামাজিক রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বৈশিষ্ট্য দ্বারা সংজ্ঞায়িত করা যায়।

এসব সভ্যতার ভিতর পরিচিত চৈনিক সভ্যতা সিন্ধু সভ্যতা হিব্রু সভ্যতা ইট রাইট সভ্যতা রোমান সভ্যতা পারস্য সভ্যতা ফিনিশীয় সভ্যতা হেলেনিস্টিক সভ্যতা গ্রিক সভ্যতা।

ক্যালেডিও সভ্যতার ব্যবিলিয়ন সভ্যতা আচারিয়া সভ্যতা সুমেরীয় সভ্যতা মেসোপটেমিয়া সভ্যতা মিশরীয় সভ্যতা ইসলামী সভ্যতা।

তবে আমাদের আজকের আলোচনার বিষয়টি হচ্ছে গ্রিক ও রোমান সভ্যতার ভূমিকা।

বিশ্ব সভ্যতা বিকাশে গ্রীক সভ্যতার ভূমিকা নিচে তুলে ধরা হলো:

মানব সভ্যতার ইতিহাসে যে কয়েকটি দেশের মধ্যে মানুষ তাদের উজ্জ্বল অতীতের জন্য ঈর্ষণীয় গৌরবের অধিকারী গ্রিকরা তাদের অন্যতম।

গ্রিক নামটির রোমানদের দেয়া হয়েছে জন্ম নিয়েছেন তাদের মধ্যে মহাকবি হোমার, জ্ঞানতাপস সক্রেটিস, স্থাপত্য ভাস্কর্যের অবশ্য নিয়ত দিকপাল, ইতিহাস ও বিডিআর রাজনীতি মঞ্চের অপ্রতিদ্বন্দ্বী কৌশলী থেমিষ্টকলস,  এর স্টাইল ও সাহিত্যের অনির্বাণ জ্যোতিষ্ক। সফোক্লিস অ্যারেস্ট অফ প্লেস ইউরোপ ইতিহাস দর্শনের প্লেটো ও এরিস্টটলের ইতিহাসের জনক।

শিল্প বিজ্ঞান ইতিহাস দর্শন ও সাহিত্য প্রতিটি ক্ষেত্রে এর অবদান বিশ্বসভ্যতার উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করে আছে।

এ সভ্যতা’র বিকাশ ও সমৃদ্ধি আখিয়ান সহ দরিয়ান ও আয়নের দের অবদান।

খ্রিস্টপূর্ব 2000 সাল নাগাদ তারা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে গ্রিসে প্রবেশ করতে শুরু করে।

16 শো থেকে 1136 অব্দ সময়সীমার মধ্যে নিকু 9393 অঞ্চল বিকশিত হয় একক গ্রসমান ব্রঞ্চ সভ্যতার।

গ্রিক সভ্যতা ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য ভাবে নগর রাষ্ট্রের সঙ্গে জড়িত এই সভ্যতার বিকাশ লাভ করে প্রথমে ইজিয়ান দ্বীপপুঞ্জে এশিয়া মাইনরে ইজিয়ান উপকূলবর্তী শহর গুলোতে এথেন্স তারপর সিসিলি দক্ষিণ ইতালির উপনিবেশগুলোতে গ্রিকদের ধর্মবিশ্বাস ছিল প্রবল।

এদের দেব-দেবী সংখ্যা ছিল অনেক তাদের বিশ্বাস ছিল এসব দেবদেবী তাদের ভাগ্যের নিয়ন্ত্রণ।

গ্রীক সভ্যতার শ্রেষ্ঠ কাল হচ্ছে খ্রিষ্টপূর্ব 50 শতক থেকে শুরু করে কয়েক দশক পর্যন্ত স্থায়ী এফএম পেরিক্লিসের শাসন আমল।

এই সময়ে বিজ্ঞান সাহিত্য শিল্পকলা দর্শন সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে চরম সাফল্য অর্জিত হয়।

বিশ্বসভ্যতার ক্ষেত্রের রঙ্গমঞ্চ থিয়েটার প্রতিষ্ঠা প্রাথমিক অবদান গ্রিকদের এই ইতিহাস শাস্ত্রে সূচনা হয় প্রাচীন গ্রিস থেকেই ষষ্ঠ শতাব্দীতে গ্রীক দর্শন এর আনুষ্ঠানিক সূত্রপাত করেন।

প্যালেস গণিত শাস্ত্রের সূচনা করে পিথাগোরাস অমর হয়ে আছেন হিপোক্রেটিস চিকিৎসাশাস্ত্র কে কুসংস্কারমুক্ত করে বৈজ্ঞানিক ভিত্তির উপর দাঁড় করান গ্রিক সভ্যতা কোন নদীর তীরে গড়ে ওঠেনি গ্রীকদের অবদান ছিল সভ্যতার সকল ক্ষেত্রে গ্রীক সভ্যতার প্রথম নগর রাষ্ট্রের উদ্ভব ঘটে চিকিৎসাশাস্ত্র গনিত জ্যামিতিতে গ্রীকদের অবদান ছিল সবচেয়ে বেশি

বিশ্ব সভ্যতা বিকাশে রোমান সভ্যতার ভূমিকা নিম্নে আলোচনা করা হল

রোমান সভ্যতা বিশ্বের অন্যতম সমৃদ্ধ সভ্যতা।

অধিকৃত রাষ্ট্রসমূহের শিল্প সংস্কৃতি ও ধ্যান-ধারণা আস্থা করে নিজস্ব অবদানের সমৃদ্ধ করে থাকে।

বিশ্বসভ্যতার ক্ষেত্রে রোমান সভ্যতার প্রধানতম অবদান রাজনীতি ও সরকার পরিচালনা ব্যবস্থা সংক্রান্ত একটি পদ্ধতি চালু করা।

পঞ্চম শতকে রোম শহরের পত্তন হয় কাল ক্রমে তাইবার নদীর মোহনায় সাতটি পার্বত্য জেলা কে কেন্দ্র করে এই নগরীর বিস্তৃতি ঘটে উঠে।

এই সাতটির নগরীতে নিয়ে পড়ে গড়ে তোলা হয় একটি একক নগররাষ্ট্র।

খ্রিস্টপূর্ব 280 অব্দ নাগাদ রোমানরা বিভিন্ন জাতির সমন্বয় সাধন মিত্রদের একটি শক্তিশালী সংগঠন করে।

রোম সাম্রাজ্য কে সুসংহত ও বিস্তৃত করতে যারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন তারা হলেন জুলিয়াস সিজার পাম্পে দ্যা গ্রেট, টাইপেরর, রুমে প্রথম আবিষ্কৃত হয় কংক্রিট।

ফলে বিশাল ও আড়ম্বরপূর্ণ দালানকোঠা খিলানো গম্বুজ নির্মাণ করা সম্ভব হয় রুম ভাস্কর্য শিল্প ও সমৃদ্ধ সভ্যতার অন্যতম পরিচায়ক।

চিকিৎসকগণ ল্যাটিন ভাষায় ওষুধপত্রের যেসব নাম লিখে থাকেন তার মূলেও রয়েছে এই সভ্যতার অবদান। এছাড়া বছরের 12 মাসের নাম এখনও গ্রীক ল্যাটিন বাসাতেই রয়ে গেছে।

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী প্রচলিত জর্জিয়ান ক্যালেন্ডারের জন্ম ইতালিতে ইউরোপ মহাদেশের প্রধান ভূখণ্ডের দেশগুলোতে আইনজীবী ব্যবস্থার বিকাশের আইনের অবদান অপরিসীম।

এখনো দেশে দেশে রোমান আইন স্বতন্ত্র মর্যাদা প্রতিষ্ঠা। অবশেষে 473 খ্রিস্টাব্দে রোম সাম্রাজ্যের পতন ঘটে।

প্রিয় শিক্ষার্থী আপনি উপরোক্ত বিশ্ব সভ্যতা বিকাশে গ্রিক ও রোমান সভ্যতার ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা থেকে আপনার নিবন্ধনটি তৈরি করতে পারেন।

শুরুতে যে ব্যাপারটি মাথায় রাখবেন আমাদের থেকে সাহায্য নিবেন ও নিজের মাথা থেকে কিছু নিয়ে সম্পূর্ণ অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান করবেন যদি হুবহু আমাদেরকে কপি করেন তাহলে প্রতিপক্ষ আপনাদেরকে অ্যাসাইনমেন্টে নম্বর দিতে কমিয়ে দিবে।

Updated: June 28, 2021 — 4:38 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *