Class 6 Home Science Assignment 6th Week Solution

এ্যাসাইনমেন্টের ক্রম: নির্ধারিত কাজ-২

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরােনাম: 

  • চতুর্থ অধ্যায়: (পরিবার ও শিশু)
  • পঞ্চম অধ্যায়: (ছােটদের শিষ্টাচার শিক্ষা)
  • একাদশ অধ্যায়: (খাদ্যাভাস গঠন)
  • চতুর্দশ অধ্যায়: (পােশাকের মজুদ ও সংরক্ষণ)

এ্যাসাইনমেন্ট/নির্ধারিত কাজ:

প্রশ্ন-১: রচনামূলক প্রশ্ন

১। শিশুর বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে শিশুকালকে বিভাজন করার প্রয়ােজন আছে কী? উত্তরের স্বপক্ষে যুক্তি দাও।

উত্তর:

শিশুর বৃদ্ধি একটা ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। এক একটা বয়সে শিশুর এক একটা কাজ করা উচিত। একে বলে বিকাশের স্তর। তবে বয়স অনুযায়ী শিশু কাজকর্ম করছে কি না সেদিকে নিয়মিত নজর রাখা উচিত প্রত্যেক মা-বাবার। কেননা কোনো দুটি বাচ্চার বিকাশ সমগতিতে হয় না।

শিশু অন্য রকম ব্যবহার করছে, তার কারণ হয়তো সে অসুস্থ বা কোনো কারণে বিপর্যস্ত। কখনো কখনো তার বিকাশ কোনো কোনো বিষয়ে সমবয়সের অন্য বাচ্চাদের তুলনায় ধীরে হতে পারে। কিন্তু অন্য বিষয়ে হয়তো অন্যদের থেকে অনেক আগে হতে পারে। শিশু নিজে প্রস্তুত না হলে তাকে হাঁটতে শেখার জন্য জোর করলে কোনো উপকার হয় না। তাই প্রত্যেক অভিভাবককে এ বিষয়ে সচেতন হওয়া উচিত।

শিশুর বিকাশের লক্ষণ

শিশুর স্বাভাবিক বিকাশে বিলম্ব হচ্ছে কি না তা কিছু লক্ষণ দেখে বোঝা যায়। যেমন—

২ মাস : কথা বললে হাসি।

৩ মাস : মাকে চিনতে পারা।

৪ মাস : গলা জড়িয়ে ধরা, ঘুরে তাকানো।

৫ মাস : কোনো জিনিসের কাছে গিয়ে তা ধরতে শেখা।

৬ মাস : ‘মা’, ‘বা’, ‘দা’ শব্দ বলা।

৮ মাস : কারো সাহায্য ছাড়া বসতে শেখা।

৯ মাস : হামাগুড়ি দিতে শেখা।

১২ মাস : দাঁড়াতে শেখা।

১৩ মাস : কোনো সাহায্য নিয়ে হাঁটতে শেখা।

২৪ মাস : সিঁড়ি দিয়ে ওঠা এবং ছোট ছোট বাক্য বলা।

৩৬ মাস : তিন চাকার সাইকেলে চড়তে শেখা।

৪৮ মাস : হাত দিয়ে বল ছোড়া এবং সিঁড়ির একটা ধাপে একটা পা দিয়ে দিয়ে ওঠা।

৭২ মাস : দেখে দেখে জটিল আকৃতি আঁকতে শেখা।

শিশুর বিকাশের স্তর

►   জন্মের পর থেকে ছয় সপ্তাহ।

►   শিশুর মাথা একদিকে ফিরিয়ে চিত হয়ে শোয়া।

►   হঠাৎ আওয়াজে চমকে যায় বা শরীর স্থির হয়ে যায়।

►   হাতের মুঠো বন্ধ করে থাকে।

►   বাচ্চার হাতের তালুতে কিছু ছোঁয়ালে সেটা ধরার চেষ্টা করে।

প্রশ্ন-২: সংক্ষিপ্ত  প্রশ্ন

ক) বাবা-মা ও শিক্ষককে কীভাবে সম্মান করা উচিত?

উত্তর:

খ) তােমার শ্রেণিতে একজন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী বন্ধু আছে। তার প্রতি তােমার আচরণ কেমন হবে?

উত্তর:

প্রশ্ন-৩: বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস জানার পর তুমি কী ধরণের খাবার মজুদ করবে? কেন? এসব খাবারকে কী বলা হয়?

উত্তর:

প্রশ্ন-৪: শীতের শেষে শীতকালীন পােশাকের যত্ন কীভাবে নিবে বুঝিয়ে লিখ।

উত্তর:

মূল্যায়ন নির্দেশক: 

প্রশ্ন-১:

  • বয়স অনুযায়ী সঠিক বিভাজন ও নামকরণ
  • নামকরণ অনুযায়ী আচরণ/বৈশিষ্ট্য নির্ধারণ
  • বিভাজন কেন প্রয়ােজন তার ব্যাখ্যা প্রদান
  • তথ্যের ধরাবাহিক উপস্থাপনা

প্রশ্ন-২:

  • ক) কমপক্ষে ৫টি সঠিক উপায় চিহ্নিতকরণ
  • খ) বিষয়বস্তুর ধারণা
  • গ) ধারণার সঠিক ব্যাখ্যা
  • আচরণ সম্পর্কিত কমপক্ষে ৫টি ধারণা প্রদান

প্রশ্ন-৩: খাবার সম্পর্কিত ধারণা প্রদান; গুরুত্ব/প্রয়ােজনীয়তার ব্যাখ্যা প্রদান

প্রশ্ন-৪: শীতকালীন পােশাকের ধারণা • যত্ন নেয়ার কমপক্ষে ৪টি সঠিক উপায় চিহ্নিতকরণ

Updated: December 4, 2020 — 3:25 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *